সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৮:৪৪ অপরাহ্ন

ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের দাবী ; ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পার হচ্ছে শিক্ষার্থীরা

বর্তমান সংবাদ ডেস্ক : / ৭৩৬ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১২:২১ অপরাহ্ণ

কাজী শহীদুল্লাহ্ তনয়, নিজস্ব প্রতিবেদক : মহাসড়কের পাশেই রয়েছে দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। দুটি প্রতিষ্ঠানে কয়েক’শ শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছে। আর তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসতে এবং যেতে পার হতে হয় মহাসড়ক। তবে ফুটওভার ব্রিজ না থাকায় শত শত শিক্ষার্থীদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পার হচ্ছে প্রতিদিন। রাস্তা পার হতে গিয়ে বিগত কয়েক বছরে শিক্ষার্থীসহ পথচারীদের দুর্ঘটনার শিকার হতে হয়েছে। হ্যা বলছিলাম নবীবগর-চন্দ্রা মহাসড়কের আশুলিয়ার কবিপুরের কথা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের কবিরপুর বাস স্ট্যান্ডে রাস্তার পাশে দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে ঐতিহ্যবাহী অঞ্জনা মডেল হাই স্কুল এবং এর পাশেই রয়েছে কবিরপুর রেডিও কলোনি প্রাথমিক বিদ্যালয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দুটোর পড়ুয়া সকল ছাত্র-ছাত্রীদের মহাসড়ক পার হতে হয় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে।

শুধু ছাত্র-ছাত্রী রাস্তা পারাপার হয় তা নয় এই এলাকায় রয়েছে কয়েকটি পোশাক কারখানা যার অবস্থান মহাসড়কের পাশে, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে রাস্তা পার হয়ে কর্মস্থলে যাওয়া অথবা কর্মস্থল হতে বাসায় আসার সময় নিতে হয় জীবনের ঝুঁকি।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বেশ কিছুদিন আগে কবিরপুর বাসস্ট্যান্ডে রাস্তা পার হতে গিয়ে ঝরে যায় কয়েকটি তাজা প্রাণ। এই করুন মৃত্যুর শিকার হয়েছে শিশু, বৃদ্ধা এবং বয়স্ক নারী। স্বজন হারানো পরিবারের দাবি খুব দ্রুত এখানে যেন একটা ফুটওভার ব্রিজ তৈরি করা হয়। যাতে আর কোন মায়ের কোল খালি না হয়।

শিক্ষার্থীরা জানায়, ফুট ওভার ব্রিজ না থাকায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত মহাসড়ক পার হয়ে স্কুলে যেতে হচ্ছে তাদের। ভয়ে ভয়ে রাস্থা পার হতে হয়। সংশ্লীষ্ট প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন এবং এখানে একটি ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের জোড় দাবী জানান তারা।

অভিভাবকরা বলেন, বিদ্যালয় মহাসড়ক সংলগ্ন রাস্তার পূর্ব পাশে অবস্থিত। ফলে সড়কের পশ্চিম পাশের এলাকার শিক্ষার্থীরা সড়ক পার হয়ে স্কুলে আসতে হয়। সড়ক পারাপার হয় সন্তানরা আর আতঙ্কে থাকতে হয় পরিবারের।

এই মহাসড়কে প্রতিদিন হাজার হাজার দূরপাল্লার যানবাহন এবং আভ্যন্তরিত যানবাহনগুলো দ্রুত গতিতে চলাচল করে। ফলে প্রতিনিয়ত এই রাস্তায় দুর্ঘটনা ঘটছে বলে অভিযোগ জানান স্থানীয়রা।

স্থানীয়রা বলেন, প্রতিনিয়ত স্কুল পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীসহ শ্রমজীবী মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পার হয় রাস্তা। আর ঠিক তখনি শুনতে হয় শোকের সংবাদ। কাজেই সবদিক বিবেচনা করে এখানে একটি ফুটওভার ব্রিজ নির্মানের জোড় দাবি করেন তারা।

এ ব্যাপারে অঞ্জনা মডেল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ জুলহাস উদ্দিন বলেন, উপজেলার বেশিরভাগ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো মহাসড়ক অথবা আঞ্চলিক সড়কের পাশে। তাই শিক্ষার্থীদেরকে খুব সতর্কতার সাথে রাস্তা পার হতে হয়। অনেক সময় তাদেরকে দুর্ঘটনায় পড়তে হচ্ছে ফুটওভার ব্রিজ না থাকায়। তাই সরকার যদি এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের ব্যবস্থা করে তবে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা নিরাপদে সড়ক পার হতে পারতো বলে মনে করেন তিনি।

Facebook Comments Box


এই ক্যাটাগরির আরো খবর
এক ক্লিকে বিভাগের খবর